আর্জেন্টিনা ফাইনালে যাওয়ায় গরু দিয়ে মেহমানদারি

কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ফাইনালে যাওয়ায় প্রায় লাখ টাকায় গরু কিনে বিরিয়ানি খাওয়ার আয়োজন করেছেন কিশোরগঞ্জের ভৈরবের মহি উদ্দিন নামে এক ভক্ত। আগামীকাল রোববার (১৮ ডিসেম্বর) বিকেলে গরুটি জবাই করে মেসি সমর্থকদের নিয়ে খাওয়া-দাওয়া শেষে রাতে খেলা দেখতে বসবেন দলটির সমর্থকেরা।পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী আজ শনিবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে স্থানীয় এক হাট থেকে ৭০ হাজার টাকায় গরু কিনে নিয়ে আসেন মহি উদ্দিন। এ সংবাদ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তাঁর মেহমানদারিতে ইচ্ছা পোষণ করেছেন অনেকেই।

জানা যায়, এই ভক্তের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে উৎপাদিত পণ্যের নাম রেখেছেন গোল্ডেন ‘মেসি মশার কয়েল’। শুধু তাই নয়, ছোট ভাইয়ের একমাত্র সন্তানের নামও রেখেছেন রাতুল ইসলাম মেসি। বর্তমানে তার বয়স ৬ বছর। এ ছাড়া নির্মাণাধীন বাস ভবনের নামও দিয়েছেন মেসি হাউস।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রিয় ফুটবল তারকার নামে ভৈরব পৌর শহরের তাতার কান্দিতে ১০ শতাংশ জমির ওপর নির্মাণ হচ্ছে মেসি হাউস। আর ভবনের ছাদে শোভা পাচ্ছে আর্জেন্টিনার সাদা ও আকাশি রঙের একাধিক পতাকা। বাড়ির নির্মাণকাজ শেষ হলে পতাকার আদলেই করা হবে রং। দু-তলার বারান্দায় থাকবে মেসির দুটি ছবি। এরই মধ্যে প্রিয় দেশের পতাকার আদলে বাড়ির গেটের ডিজাইন করা হয়েছে।

মহি উদ্দিন জানায়, ২০০২ সালে লিওলেন মেসির খেলা দেখে প্রেমে পড়েন তিনি। ১৯৯০ সাল থেকে ফুটবল বিশ্বকাপে তাঁর প্রিয় দল ছিল আর্জেন্টিনা। এদিকে সময়ের ব্যবধানে ফুটবল জগতে বিশ্ব তারকা হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন লিওলেন মেসি। ফলে মহি উদ্দিন তার পরিবার থেকে শুরু করে ব্যবসা-বাণিজ্যেও মেসির নামে নাম করণ করেন। আর ফুটবল বিশ্বকাপে একমাত্র মেসিই তাঁর কাছে সুপার স্টার। যার পায়ে জাদু আছে। আর মেসির জাদুতে তিনি মুগ্ধ।

মহি উদ্দিন আরও জানায়, এবারের বিশ্বকাপ শুরু থেকে এ পর্যন্ত প্রায় নিজ এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ৫ শতাধিক জার্সি বিতরণ করেছেন তিনি। তা ছাড়াও প্রথম রাউন্ডে সৌদি আরবের কাছে পরাজয়ের পর তাঁর মন অনেক খারাপ ছিল। এরপর দ্বিতীয় রাউন্ডে এবং সেমি ফাইনাল ম্যাচ খেলে ফাইনালে ওঠায় তিনি স্বপ্ন দেখছেন এবারের বিশ্বকাপের ট্রফি মেসির হাতে উঠবে।এদিকে এবারের বিশ্বকাপে ফাইনাল খেলবে অপ্রতিরোধ্য ফ্রান্স ও লিওলেন মেসির ফুটবল টিম আর্জেন্টিনা। আর ফাইনাল খেলায় চ্যাম্পিয়ন ট্রফি মেসির হাতে উঠলে বিজয়ের উল্লাসে মেতে উঠবে মেসি ভক্ত মহি উদ্দনসহ তাঁর অনুসারীরা।