নুরুজ্জামানের সন্ধান মেলেনি, তীব্র স্রোতে উদ্ধারকাজ স্থগিত

পদ্মা সেতু থেকে নদীতে লাফ দিয়ে নিখোঁজ নুরুজ্জামানের (৩৮) সন্ধানে অভিযান শুরু করলেও তীব্র স্রোতের কবলে পড়েছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। পরে উদ্ধার তৎপরতা স্থগিত করেছে ফারায় সার্ভিস।মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উদ্ধারে অংশ নেওয়া ফায়ার সার্ভিসের দলনেতা সঞ্জয় দাস।তিনি বলেন, ‘পদ্মা সেতুর ওপর থেকে ১০ অথবা ১১ নম্বর পিলারের কাছ থেকে একজন লাফ দিয়ে নদীতে পড়েছেন। খবর পেয়ে আজ আমরা ঘটনাস্থলে যাই। তার খোঁজে উদ্ধার তৎপরতা চালানো হয়। তবে নদীতে প্রচুর পরিমাণ স্রোত থাকায় আমাদের ডুবুরি নিচে যেতে পারেননি। তীব্র স্রোতের কারণে উদ্ধার কাজ চালানো যাচ্ছে না। আমরা কাজ আপাতত স্থগিত রেখেছি।’

সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেল পৌনে ৩টার দিকে সেতুর ঢাকামুখী লেন থেকে নদীতে লাফ দেন নুরুজ্জামান। তার সন্ধানে সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযান চলে। তবে না পাওয়ায় মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনে নদীতে অভিযান চালায় নৌপুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। তবে কী কারণে তিনি নদীতে লাফ দিয়েছেন তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।নিখোঁজ নুরুজ্জামানের বাড়ি ময়মনসিংহের গৌড়িপুর থানায়। তিনি নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরের উর্মি গার্মেন্টস নামের একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন।

নুরুজ্জামানের সঙ্গে থাকা ব্যক্তিদের বরাত দিয়ে মাওয়া নৌপুলিশের ইনচার্জ ওহিদুজ্জামান জাগো নিউজকে জানান, সোমবার সকালে তারা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে গিয়েছিলেন। পরে সেখান থেকে বেলা ১১টার দিকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হন। পদ্মা সেতুতে ঢাকাগামী লেনটিতে কাজ চলছে। যে কারণে প্রাইভেটকারটি ধীরগতিতে ছিল। নুরুজ্জামান পেছনের সিটে ছিলেন। হঠাৎ গাড়ির দরজা খুলে তিনি নদীতে লাফ দেন। তবে সঠিক কী কারণে তিনি লাফ দিয়েছেন তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

মাওয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ডিউটি অফিসার অনিক বলেন, নিখোঁজ যুবকের সঙ্গে থাকা ফারুক নামের একজন জানিয়েছেন তারা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিতে গিয়েছিলেন। তিনি কী কারণে লাফ দিয়েছেন সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। সঠিক কারণটি এখনই বলা যাচ্ছে না। তার সঙ্গে কারও শত্রুতা ছিল কিনা, পারিবারিক কোনো কারণ বা কোনো বিষয়ে আক্ষেপ ছিল কি না তাও দেখা হচ্ছে। মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং চলছে।ফাঁড়ির ইনচার্জ ওহিদুজ্জামান জানান, খবর পাওয়ার পর গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযান চালানো হয়। তবে ওই ব্যক্তির খোঁজ পাওয়া যায়নি। আজ ফের অভিযান শুরু হলেও তীব্র স্রোতের কারণে স্থগিত করা হয়েছে।