পাবনায় মদের দোকান ভেঙে দিলো স্থানীয় মুসল্লীরা

পাবনা সুজানগর উপজেলার কাশিনাথপুর মোড়ে একটি মদের দোকান ভেঙে দিয়েছে স্থানীয় মুসল্লীরা।রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কাশিনাথপুর মোড় এলাকায় স্থানীয় ইসলামী আন্দোলনের নেতাকর্মীরা আসরের নামাজ পড়ে সবাই একত্রিত হয়ে মদের দোকানটি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়।স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, আহম্মদপুর ইউপি

চেয়ারম্যান কামাল আহমেদের ভাতিজা রবি মিয়ার কাশিনাথপুরে মার্কেটে একটি রুম ভাড়া নিয়ে রামকৃষ্ণ নামের এক ব্যক্তি মদ বিক্রি করে আসছিলেন।এ বিষয়ে ইসলামী আন্দোলনের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী জানান, মদ হারাম। সেই মদ গ্রাম অঞ্চলে প্রতিদিন সন্ধ্যার পরে এক ঘন্টা করে বিক্রি করা হতো। এতে স্থানীয় যুব সমাজ ধ্বংসের

দিকে ঝুঁকে পড়ছিল। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।এ বিষয়ে আহমদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমেদের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ইসলামী আন্দোলনের বেশকিছু নেতাকর্মী বিষয়টি আমাকে অবগত করেছিলেন এবং আজকে তারা সবাই আমার অফিসে আসছিলেন।

আমি তাদের বলেছি আপনারা যদি ওখানে মদ পান তাহলে আপনারা নষ্ট করে ফেলুন।এ বিষয়ে মদের দোকানের সেলসম্যান পরাণ কুমার শীল জানান, আমাদের বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত লাইসেন্স আছে। স্থানীয় কিছু হুজুর কোয়ালিটির মানুষ আমাদের সাথে প্রতিহিংসামূলক এই হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে। আমাদের দোকানও বেশ কিছুদিন ধরে বন্ধ রয়েছে।আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন আলম জানান, বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।