বলাৎকারের সময় দপ্তরির বিশেষ অঙ্গ ছিঁড়ে ফেললো কিশোর

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় প্রতিবন্ধী কিশোরকে বলাৎকারের অভিযোগ উঠেছে আজাদ মোল্লা (৩৫) নামে বিদ্যালয়ের এক দপ্তরির বিরুদ্ধে। এ সময় ওই কিশোর কামড়ে আজাদের পুরুষাঙ্গ অনেকটাই ছিঁড়ে ফেলেছে।রোববার (১৮ ডিসেম্বর) সকালে বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য (মেম্বার) সাবু মোল্যা বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বর্নিচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম-প্রহরী আজাদ মোল্লা একই গ্রামের এক প্রতিবন্ধীকে বলাৎকার করে। এ সময় ক্ষেপে গিয়ে ছেলেটি আজাদ মোল্লার পুরুষাঙ্গ কামড়ে অনেকটাই ছিঁড়ে ফেলে।

স্থানীয়রা আহত অবস্থায় আজাদ মোল্লাকে উদ্ধার করে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখান থেকে ওইদিনই তাকে ঢাকায় রেফার করা হয়।

এ বিষয়ে বর্নিচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সানোয়ার করিম জাগো নিউজকে বলেন, স্কুলের দপ্তরি কাম-প্রহরী আজাদ মোল্লা বলাৎকারের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি জানিয়েছেন। এর বেশি কিছু বলতে চাই না।

স্থানীয় ইউপি সদস্য (মেম্বার) সাবু মোল্যা বলেন, আজাদ মোল্লাকে আহত অবস্থায় ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। তার অপারেশন করা হয়েছে বলে শুনেছি।

এ বিষয়ে বর্নিচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও মধুবর্নি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনিচুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, আমি ঢাকায় আছি। তবে মোবাইল ফোনে শুনেছি আজাদ মোল্লা খারাপ কাজ করেছে। এসে খোঁজ নিয়ে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আব্দুল ওহাব জাগো নিউজকে বলেন, ঘটনা শুনে রাতে ওই বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তাদের কাউকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। আমরা যোগাযোগের চেষ্টা করছি। খোঁজ নিয়ে জানানো যাবে।