লকডাউনের পঞ্চম দিনে সড়কে বেড়েছে গাড়ির সংখ্যা

ব্যাংক, পুঁজিবাজার, কলকারখানা ও বিভিন্ন অফিস খোলা থাকায় চলমান লকডাউনের পঞ্চম দিনে গতকালের চেয়ে সড়কে বেড়েছে গাড়ির সংখ্যা।রোববার সকাল থেকে বাস, লেগুনা ছাড়াও প্রায় সব ধরনের যানবাহনই চলতে দেখা গেছে রাজধানীতে। এসব পরিবহনে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। উপেক্ষিত হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব।

প্রথম দিন সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ মোটামুটি বাস্তবায়িত হলেও দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম দিনের লকডাউনে অনেকেই বের হয়েছেন মুভমেন্ট পাস ছাড়া। এ জন্য সার্ভার জটিলতাকে দায়ী করছেন কেউ কেউ। অনেক আবার দিচ্ছেন নানা অজুহাত।তবে যাদের কাছে পাস নেই তাদের উল্টোদিকে ফেরত পাঠিয়েছে পুলিশ। পাশাপাশি যে গাড়ির কাগজপত্র নেই তাদের আনা হচ্ছে আইনের আওতায়।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, সরকারের প্রজ্ঞাপন বাস্তবায়নে লকডাউনের এ ধারাবাহিকতা ধরে রাখা হবে।করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত ‘সর্বাত্মক লকডাউনে’ কাজ ও চলাচলে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

জানা যায়, আগামীকাল সোমবার লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো সংক্রান্ত একটি শীর্ষ পর্যায়ের সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেই সভার মতামত নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন সাপেক্ষে চলমান লকডাউন আরো এক সপ্তাহ বাড়িয়ে ২২ থেকে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত চলতে পারে। চলমান লকডাউনের মেয়াদ শেষ হবে ২১ এপ্রিল রাত ১২ টায়। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে।